পরিশ্রম সার্থক হল মিমি নুসরাত ও দেবের

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে মমতা ব্যানার্জির হাতকে শক্তিশালী করতে বিশ্বস্ত সৈনিকের মতো কাজ করে গেছেন টালিউড তারকা মিমি, নুসরাত ও দেব।

বিধানসভা নির্বাচনে তাই তৃণমূল কংগ্রেসের বিশাল জয়ে যারপরনাই খুশি এ তিন তারকা। এ নির্বাচনে তারা নিজেরা প্রার্থী ছিলেন না বটে, কিন্তু দলকে জেতাতে ঝাঁপিয়ে পড়েন সর্ব শক্তি দিয়ে। তাই রোববার তৃণমূল ২০০ পার করা মাত্রই টুইট করলেন মিমি চক্রবর্তী, লিখলেন ‘অপরাজিত’।

দেব, মিমি, নুসরত- তিনজনেই খুবই খুশি। পরিশ্রমের ফল ফলেছে, স্বাভাবিক ভাবেই একটা তৃপ্তির বোধ কাজ করেছে তিন তারকার মধ্যে।উৎসাহিত মিমি জানিয়েছেন, ‘বাংলা আজ যা করে, ভারত আগামীকাল তা ভাবে’। নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সুরে সুর মিলিয়েই মিমির এই উচ্ছ্বাস প্রকাশ।

বিধানসভা নির্বাচনের প্রচার প্ল্যানিংয়ে প্রথমদিনেই বড় দায়িত্ব দেওয়া হয় দলের ৩ তারকা দেব, মিমি ও নুসরতকে।তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বলেছিলেন, ‘দেব, মিমি, নুসরতকে বেশি করে সময় দিতে হবে’। ৩ জনেই তড়িঘড়ি তাদের শুটিংয়ের কাজ সেরে মন দেন প্রচারের কাজে।

দেব জানান, ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের সময়ে এত জনসমাগম দেখিনি, যা এবারের বিধানসভায় দেখেছি। প্রচার চলাকালীন কোভিডের প্রকোপ বাড়ায় প্রকাশ্য সভায় দাঁড়িয়ে মানুষকে মাস্ক পড়তে বলেছি।

এমনকি এটাও বলেছি, বাড়ি থেকে বেরোবেন না। যাকে খুশি ভোট দিন। আমাদের দলের এই অ্যাপ্রোচ মানুষের পছন্দ হয়েছে, তারা বুঝেছেন আমরা তাদের পাশে আছি।

নুসারত টুইটে লেখেন, ‘খেলা হয়েছে, জেতা হচ্ছে’। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের জেতার সম্ভাবনা স্পষ্ট হওয়া মাত্রই হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে লেখেন টিএমসি করবে ২০০ পার।

এবারের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের প্রচারে ৩ তারকার পরিশ্রম এবং সব স্পেকুলেশন উড়িয়ে বিরাট ব্যবধানে তৃণমূলের জয় তিন তারকার মনোবল আরও দৃঢ় করেছে।

Check Also

জেমসকে গা’লাগা’লি শেষে যা বললেন নোবেল!

ভবিষ্যদ্বাণী তাই হলো। তরুণ কণ্ঠশিল্পী মাঈনুল ইসলাম নোবেল জানালেন, তার ফেসবুক পেজ হ্যা’ক’ড হয়েছে। তবে …